Logo

স্থূল মানুষেরা কি করোনা জটিলতায় বেশী ভুগেন?

নিউজ ডেস্ক
প্রকাশিত: শুক্রবার, ২৩ এপ্রিল, ২০২১
স্থূল রোগ সবসময় একটি বড় সমস্যা।

Obesity বা স্থূল রোগ সবসময় একটি বড় সমস্যা। এটির কারণে শুরু হয় সব ধরণের মেটাবলিক ডিসওর্ডার। ডায়াবেটিস থেকে শুরু করে উচ্চ রক্তচাপ এবং হার্ট ডিজিজের অন্যতম কারণ হলো স্থূল রোগ।

ফ্যামিলি হিস্টরির বাইরে স্থূল রোগের অন্যতম কারণ হলো খাদ্যাভাস। ওয়েস্টার্ণ জাংক ও চর্বি জাতীয় খাবার সবসময় খেলে আপনার স্থূল সমস্যায় ভুগার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশী। অতিরিক্ত চর্বির কারণে শরীরের এক ধরণের toxicity (বিষক্রিয়া) হয় যাকে আমরা লিপোটক্সিসিটি বলি। এই লিপোটক্সিসিটির কারণে শরীরে ইনফ্লামেশন তৈরী হয়। যার কারণে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমে যায় এবং সহজেই ভাইরাস ব্যাকটেরিয়া জনিত রোগের শিকার হয়। বিশেষ করে জ্বর ঠান্ডা লেগে থাকে।

আমরা জানি করোনাভাইরাস ইনফেকশন সবার মধ্যে সমান উপসর্গ তৈরী করেনা বা করোনাভাইরাস জনিত জটিলতা সবার সমান না। এখন পর্যন্তু যা মনে করে হয় তা হলো সবার শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা সমান না। এই রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কেন সমান না তার একটা কারণ হলো এই খাদ্যাভাস।

Obsessed/ মোটা লোকজন স্বাভাবিক মানুষের চেয়ে বেশী করোনাভাইরাসের শিকার হয় কিনা আমার জানা নেই, তবে অতিরিক্ত ওজন সমস্যায় থাকা মানুষের করোনাভাইরাস জনিত জটিলতা বেশী হতে পারে। করোনাভাইরাসের মত চতুর ভাইরাসকে পরাজিত করাবার মত যথেষ্ট শক্তি থাকেনা বলে এদের সমস্যা হয়ত বেশী হয়।

আমেরিকাসহ পাশ্চত্য দেশগুলোতে খাদ্যাভাসের কারণে মানুষ তুলনামূলকভাবে মোটা হয়। করোনাভাইরাসের কারণে এই দেশগুলোর বেশী সমস্যা হচ্ছে। আবার আমরা যদি জাপানের দিকে তাকাই ওরা কিন্তু অনেক বেশী স্লিম এবং ওদের করোনাঊাইরাস জটিলতার কারণে মৃত্যু অপেক্ষাকৃত কম। আমাদের বাংলাদেশেও যদি তাকাই তাহলে দেখব এখানে খেটে খাওয়া মানুষের মধ্যে জটিলতা কম। অন্যদিকে অপেক্ষাকৃত সচ্ছল বা ধনী মানুষগুলো বেশী করে করোনা সমস্যায় ভুগছে। এর একটা কারণ হতে পারে ধনী মানুষেরা চর্বি জাতীয় খাবার বেশী খায়।

করোনার এই সময়ে তাই সঠিক খাবার খাওয়া উচিত।

চর্বি জাতীয় খাবার খাদ্য তালিকা থেকে বাদ দেওয়া যেতে পারে। এমনিতেই এই সময়ে আমরা অবসাদজনিত সমস্যায় ভুগছে। তার উপর চর্বি জাতীয় খাবার খেয়ে আমাদের শরীরের চাপ বাড়িতে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা কমানো কোন ভাবেই বুদ্ধিমানের কাজ হবেনা। চর্বি জাতীয় খাবার পরিহার ছাড়াও ঘরের মধ্যে হাল্কা বেয়াম করা যেতে পারে। যেমন করেই হোক আমাদের চাপমুক্ত রাখার কৌশল জানতে হবে।

করোনার একটা উপলক্ষ্য মাত্র যার মাধ্যমে আমাদের ভুলগুলো সামনে আসতেছে। স্থূল হওয়া যাবেনা এই সত্য বুঝতে পারতেছি। কিন্তু আমাদের মনে রাখতে হবে, শুধু করোনা নয়, সবসময় আমাদের জানতে হবে কিভাবে সঠিক খাবার নির্বাচনের মাধ্যমে আমাদের শরীরের উপর চাপ কমাতে পারি। বাতাসে ভেসে বেড়ানো জীবাণুর হাত থেকে বাঁচতে হলে শরীরের আভ্যন্তরীণ চাপ কমাতে হবে। ঘরে বিবাদ থাকলে যেমন বাইরের শক্র মোকাবিলা কঠিন হয়, তেমনি করে শরীর ও মন ঠিক রাখতে না পারলে করোনার মত শত্রুর আগ্রাসন রুখে দেওয়া আসলেই খুব কঠিন।

 

এপ্রিল ২৩, ২০২১

 

ড. মো. ফজলুল করিম

বিশিষ্ট লেখক, কলামিস্ট, গবেষক এবং

শিক্ষক: মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, টাঙ্গাইল।

সংবাদটি শেয়ার করুন


এ সম্পর্কিত আরও সংবাদ

লাইক দিয়ে সাথে থাকুন।

Theme Created By Tarunkantho.Com